বৃহত্তর জৈন্তার মাটি ও মানুষের সার্বিক সার্বিক উন্নয়নে টেকসই নেতৃত্বের প্রয়োজন-জয়নাল আবেদীন

 

সিলেট প্রতিনিধি::
জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো: জয়নাল আবেদীন বলেছেন, বৃহত্তর জৈন্তিয়া তথা জৈন্তাপুর, কানাইঘাট, গোয়াইনঘাট ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার মাটি ও মানুষের সার্বিক উন্নয়নে টেকসই নেতৃত্বের প্রয়োজন। তিনি বলেন, এ জনপদ গুলো নানাবিধ প্রাকৃতিক সম্পদে ভরপুর। এ অঞ্চলের সম্পদকে কাজে লাগিয়ে দেশ ও মানবতার বহু কল্যাণ সাধিত হচ্ছে। দেশের উন্নয়নে অনন্য ভূমিকা রয়েছে বৃহত্তর জৈন্তার তেল, গ্যাস, পাথর সহ বহু ধরনের প্রাকৃতিক সম্পদের। অথচ আমরা জৈন্তাবাসী এখনও আমাদের নায্য সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত রয়েছি। অবহেলিত জনপদ হিসাবে আজও দেশের মানচিত্রে অন্তিম জনপদ হিসাবে আমরা বিবেচিত হচ্ছি। তিনি বলেন, এ ধরনের বঞ্চনা থেকে এ জনপদের মানুষের তাদের ইতিহাস ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনার বিকল্প নেই।

মোঃ জয়নাল আবেদীন বুধবার সন্ধ্যায় শিক্ষা, সেবা ও ভাতৃত্ব এই তিন মূলনীতিকে ধারণ করে আলোকিত সোনার জৈন্তিয়া বিনির্মাণে অঙ্গীকারবন্ধ অরাজনৈতিক সংগঠন “বৃহত্তর জৈন্তিয়া কল্যাণ পরিষদ” এর ঈদ পুণর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। পরিষদের সভাপতি বিশিষ্ট সাংবাদিক সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি গোলজার আহমদ হেলালের সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারি মহি উদ্দিন জাকারিয়ার পরিচালনায় এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বরেণ্য শিক্ষাবিদ সেন্ট্রাল জৈন্তা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব এনায়েত উল্লাহ, জৈন্তাপুর তৈয়ব আলী ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক এখলাছুর রহমান।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে আরো বলেন, অংকুরে লুকিয়ে আছে আগামী দিনের সম্ভাবনা। অর্থাৎ আমাদের এলাকায় অনেক প্রতিভা আড়ালে লুকিয়ে আছে তাদের সঠিক পর্যবেক্ষণ প্রয়োজন। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন, জৈন্তিয়া কল্যাণ পরিষদ এমন প্রতিভাকে খুঁজে নিয়ে এসে জাতিকে উপহার দিবে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পরিষদের সহসভাপতি মিজানুর রহমান, আইন বিষয়ক সম্পাদক এড: কবির আহমদ, নারীনেত্রী পলিনা রহমান, জেলা ছাত্রদল নেতা শিহাব উদ্দিন আহমেদ, মহানগর ছাত্রশিবির সমাজসেবা সম্পাদক আব্দুল কাদির, ছাত্র মজলিস নেতা মাহদী হাসান, ছাত্র জমিয়ত নেতা শাহিদ হাতেমী, আব্দুর রহমান আল মিসবাহ। উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক এইচ.কে. শরীফ সালেহীন, ইসলাইল হোসেন, আহমেদ জুবায়ের, সাংবাদিক জুনায়েদুর রহমান, জাহিদুর রহমান, নূরুল আমীন, বদরুল ইসলাম, মুহিবুল হক বুলবুল, মো: এনামুল হক, মু: নজরুল ইসলাম, হাফিজ মাসুম, আসাদুল আলম চৌধুরী, খলিলুর রহমান মাসুম, এনামুল হক সবুজ প্রমুখ।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *