নীলফামারী সদরে ব্যবসায়ীর কাছে অসংক্ষক মেয়াদ উত্তীর্ন পানীয় ড্রিংক, অনুসন্ধানে সিআরবি।

সাজ্জাদ হোসেন,নীলফামারী :নীলফামারী জেলায় ১০ জুন রবিবার বিকালে “শ্রবর্নী কনফেকশনারী ভ্যারাইটিস্ ষ্টোর” ডাকবাংলা রোড়, নীলফামারী জেলা পরিষদ এর রাস্তা সংলগ্ন দক্ষিণে এক ব্যবসায়ী কাছ থেকে অসংক্ষক মেয়াদ উত্তীর্ন পানীয় (স্পিড ড্রিংক) থাকার খবর পাওয়া গেছে। ঘটনা স্থালে গিয়ে প্রত্যক্ষীকৃত সূত্রে জানা গেছে, পানীয় ড্রিংক স্পিড খেয়ে অসুস্থ হন ভোক্তা-ভুগি। তারপর তিনি দেখেন পানীয় ড্রিংকের মেয়াদ নেই। বিষয়টি নিয়ে অভিযোগ করেন “কাউন্সিল অব ভোক্তা অধিকার বাংলাদেশ- সিআরবির” রংপুর বিভাগীয় কমিটিতে। বিষয়টি আমলে নিয়ে সংস্থার বিভাগীয় সমন্বয়কারী মুহাম্মদ সাজ্জাদুর রহমান বিষয়টির সত্যতা জন্য উক্ত ব্যবসায়ীর দেকানে যান ও অসংক্ষক মেয়াদ উত্তীর্ন পানীয় ড্রিংক পান, যাহার উদপাদনের তারিখ ০২/০২/২০১৮ ইং ও মেয়াদ উত্তীর্নের তারিখ ০১/০৬/২০১৮ ইং, অর্থাৎ ৯ দিন আগে মেয়াদ শেষ হয়েছে।

আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য নীলফামারী জেলা প্রশাসকে মোবাইলে তাৎক্ষনিক বিষয়টি অবগত করান “কাউন্সিল অব ভোক্তা অধিকার বাংলাদেশ- সিআরবির” বিভাগীয় সমন্বয়কারী।

জেলা প্রশাসক বিষয়টির আনইগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সদর নির্বাহী অফিসারকে নিদের্শ দেন। এমত অবস্থায় ইউএনও আসার খবর পেয়ে ব্যবসায়ী তার মেয়াদ উত্তীর্ন পানীয় ড্রিংক নিয়ে দেকান বন্ধ করে পালিয়ে যান। এবং তার পালায়নের বিষয়টি মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারন করা হয়েছে।

এবিষয়ে কাউন্সিল অব ভোক্তা আধিকার বাংলাদেশ-সিআরবির সমন্বয়কারীর সাথে কথা হলে তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন,মেয়াদ উত্তীর্ন পণ্য বিক্রয়ের অপরাধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে সংস্থার পক্ষে। এবং প্রশাসন ও সিআরবির সমন্বয়ে অভিযান পরিচালনা করা হবে।

আপর দিকে খবর পেয়ে ঘটনা স্থালে ছুটে আসেন নীলফামারী সদর উপজেলার স্যানিটারি ইন্সপেক্টার আল-আমিন। কিন্তু তার উপস্থিত হওয়ার পূর্বেই পালিয়েছেন শ্রবর্নী কনফেকশনারী ভ্যারাইটিস্ ষ্টোর এর কর্তৃপক্ষ।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *